আগামী ১৯ তারিখ ‘ফতেহ দিবস’ উদযাপন ও ২৬ নভেম্বর ‘রাজভবন চলো’-সহ একগুচ্ছ কর্মসূচী সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 2

সোমবার নয়া দিল্লির শ্রী রাকাব গঞ্জ সাহেব গুরুদ্বারে অনুষ্ঠিত হল সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার জাতীয় পর্যায়ের বৈঠক। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন গোটা দেশের কৃষক সংগঠনগুলোর শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। দিল্লির ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলন ‘প্রত্যাহার’ করার এক বছর অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পরেও কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের দাবিসমূহ পূরণ না করায়, পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করার উদ্দেশ্যেই অনুষ্ঠিত হল সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতৃবর্গের বৈঠক। এই বৈঠক থেকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

গত বছর ১৯ নভেম্বর ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলনের চাপে কৃষি আইনগুলি প্রত্যাহার করতে বাধ্য হন। আর সেই কারণেই এ বছর ১৯ ডিসেম্বর সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা ‘ফতেহ দিবস’ উদযাপন’ করতে চলেছে।

২০২০ সালের ২৬ নভেম্বর মোর্চার ডাকে দেশের কৃষকেরা দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, এ বছর গোটা দেশের প্রত্যেকটি রাজ্যে ‘রাজভবন চলো’ কর্মসূচী পালন করা হবে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার উদ্যোগে। এই কর্মসূচী থেকে প্রত্যেকটি রাজ্যের রাজ্যপালের কাছে পেশ করা হবে স্মারকলিপি, যাতে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার মূল কেন্দ্রীয় দাবিগুলোর পাশাপাশি রাজ্যস্তরের দাবিগুলোও থাকবে।

ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলনের পর বিজয়ের পর গত বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে ১১ ডিসেম্বর কৃষকেরা তাঁদের গ্রামে ফিরে গিয়েছিলেন বিজয় মিছিল করতে করতে। এ বছর ১১ ডিসেম্বর এই বিজয় উদযাপনে প্রতিবাদ কর্মসূচী পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা, আর এরই অংশ হিসাবে ডিসেম্বরের ১ তারিখ থেকে ১১ তারিখ অবধি রাজ্যসভা ও লোকসভার প্রতি সাংসদকে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে মোর্চার তরফে।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার পরবর্তী বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৮ ডিসেম্বর। ঐ বৈঠকে আন্দোলনের পরবর্তী রূপরেখা প্রণয়ন করবে মোর্চা। ঐ বৈঠকেই ‘ঋণ মুক্তি- পুরো দাম/ এমএসপি’র নিশ্চয়তা’ স্লোগানকে সামনে রেখে মোর্চার পরবর্তী সংগ্রামের ব্যাপারে বিশদে আলোচনার পাশাপাশি সিদ্ধান্ত নেবেন সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতৃবর্গ।

বুটা সিং, বুর্জগিল, রামিন্দার সিং পাতিয়ালা ও জগতর সিং বাজওয়ার একটি প্যানেল-সহ ৭০ জনের বেশি কৃষক নেতা এদিনের বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন।

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *