দলিত ক্ষেত মজুরদের প্রতিরোধ সংগঠিত হচ্ছে পাঞ্জাবে

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 2

রেভোলিউশনারি রুরাল লেবার ইউনিয়নের (পাঞ্জাব) প্রাদেশিক সভার দ্বিতীয় ও শেষ দিনে প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে পর্যালোচনা প্রতিবেদন পাঠ, আর্থিক প্রতিবেদন উপস্থাপন এবং পাশ ছাড়াও রাজ্য কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। সর্বসম্মতিক্রমে নতুন কমিটি নির্বাচিত হয়। নবনির্বাচিত সাত সদস্যের কমিটি থেকে সর্বসম্মতিক্রমে রাজ্য কমিটির সভাপতি সঞ্জীব মিন্টু, রাজ্য সম্পাদক ধর্মপাল সিংকে নির্বাচিত করা হয়। দ্বিতীয় দিনের অধিবেশন শুরু হয় রাজ্য সম্পাদক ধর্মপাল সিং কর্তৃক পর্যালোচনা প্রতিবেদন পাঠের মাধ্যমে।

সাম্প্রতিক সময়ে এই সংগঠন দলিত ক্ষেত মজুরদের প্রতিরোধ সংগঠিত করেছে পাঞ্জাবে। বিশেষত এক তৃতীয়াংশ পঞ্চায়েত জমির অধিকারের জন্য এবং নকল নিলাম নির্মূল করার জন্য ন্যায্য মূল্যে নিলাম, বছরে ১০০ দিনের কাজ, প্রতিটি পরিবারকে ৫ মারলা জমি, দৈনিক ন্যূনতম ৭০০ টাকা মজুরি ইত্যাদি দাবিতে কৃষি শ্রমিকদের সংগঠিত করে বহু সভা পরিচালনা করে এবং শহুরে বুদ্ধিজীবীদের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়ে রাজনৈতিক সমস্যাও উত্থাপন করেছিল। এই সংগঠন ১০০টিরও বেশি গ্রামে সংগ্রামের পরিসর শক্তিশালী করেছে, ক্ষেত মজুরদের গুরুত্বপূর্ণ শক্তিতে পরিণত করেছে৷

উল্লেখযোগ্য যে এটি সাম্প্রতিক সময়ে জমিনপ্রাপ্ত সংঘর্ষ কমিটির সাথে সংহতিতে রয়েছে। তবে প্রায় ৩ বছর আগে রুরাল লেবার ইউনিয়নে মধ্যে একটি ভাঙন দেখা দিয়েছিল – কেপিএমইউ-এর অন্য অংশ ও লোক সংগ্রাম মোর্চা এবং বিকেইউ (ক্রান্তিকারি)। এভাবে দলিত ক্ষেত মজুর আন্দোলনে একটি বিভাজন তৈরি হয়েছিল। পাঞ্জাব র‍্যাডিক্যাল স্টুডেন্টস ইউনিয়ন ক্ষেত মজুরদের সঙ্গে দাঁড়িয়েছে।

সূত্র- কাউন্টার কারেন্টস

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *