জয় কিষাণ: ৫ এপ্রিল ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 4

কারখানার দূষিত জল মিশছে খালে, বন্ধ চাষ

বছর দশেক আগে আমতা-১ ব্লকের উদং-২ পঞ্চায়েতের পূর্ব গাজিপুরে একটি কাপড়কল তৈরি হয়েছিল। সেই কারখানার বর্জ্য রঙিন জল খালে মেশায় এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এর জেরে বিস্তীর্ণ এলাকায় চাষাবাদ যেমন বন্ধ হয়ে গিয়েছে, তেমনই ঘরে ঘরে চর্মরোগ হচ্ছে বলে গ্রামবাসীদের অভিযোগ। লিখিত ভাবে গ্রামবাসীরা বিভিন্ন মহলে বিষয়টি জানালেও কোনও প্রতিকার হয়নি বলে তাঁদের অভিযোগ।


সোমবার তাঁরা গাজিপুরে বাগনান আমতা রোড অবরোধ করার পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু প্রশাসনের তরফ থেকে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস মেলায় তাঁরা সে পথে হাঁটেননি।

সূত্র- আনন্দবাজার পত্রিকা

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

চাষের জমি বেদখল হওয়ার প্রতিবাদে কৃষকদের মিছিল ঘিরে উত্তেজনা

ফের জমি বিবাদে উত্তপ্ত ভাঙড়ের হাতিশালা। অভিযোগ, চাষের জমি দখল করে প্রমোটারদের হাতে তুলে দিচ্ছে একদল অসাধু ব্যবসায়ী। এর প্রতিবাদে সোমবার মিছিল করেন কৃষকরা। মিছিলের মাঝেই প্রমোটারের অনুগামীদের সঙ্গে বচসা শুরু হয় কৃষকদের। বচসা থেকেই শুরু হাতাহাতি। দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন জখম হন। ঘটনার তদন্তে কাশীপুর থানা।

সূত্র- নিউজ ১৮ বাংলা

বিশদে জানতে এখানে ক্লিক করুন

১৫ টাকায় প্রতি কিলো তরমুজ! চাষের খরচ উঠবে? দুশ্চিন্তায় কৃষকরা

জলের দরে বিক্রি হচ্ছে তরমুজ। দাম না মেলায় মাথায় হাত কৃষকদের। ঘটনাস্থল মুর্শিদাবাদের কান্দি মহকুমার ভরতপুর ব্লকের বিভিন্ন গ্রাম। রাজ্যের কাছে সাহায্যের আরজি জানিয়েছেন চাষিরা। কৃষকদের এই দুর্দশা আজ নতুন নয়। মুর্শিদাবাদ জেলার মধ্যে সবথেকে বেশি তরমুজ উৎপাদন হয় ভরতপুর থানা এলাকায়। কিন্তু যে পরিমাণ দাম পাওয়ার কথা তা কৃষকরা পান না।

কান্দি মহকুমা কৃষি আধিকারিক পরেশনাথ বল জানিয়েছেন, “মূলত এই ভরতপুর ব্লক এলাকার চারিদিকে রয়েছে নদী। ময়ূরাক্ষী, বাবলা, কানা ময়ুরাক্ষী, কুয়ে, নদীগুলির বালি জমিতে এই ফসলের উৎপাদন সব থেকে বেশি হয়। এবারও ভরতপুর থানার আলুগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েত আমলায়, মাসলায়, আঙ্গারপুর গ্রাম গুলির মাঠে প্রচুর পরিমাণে তরমুজের ফলন হয়েছে। উৎপাদন বেশি হওয়ায় ও চাহিদা কম থাকায় পর্যাপ্ত মূল্য পাচ্ছে না কৃষকরা।”

সূত্র- সংবাদ প্রতিদিন

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

ভাল ফলন, তবুও লোকসান! সরকারের কাছে সহায়ক মূল্যে আলু কেনার দাবি কৃষকের!

আলুর ফলন ব্যাপক হারে হওয়ায় বাজারে দাম মিলছে না। চরম সমস্যায় পড়েছেন মালদহের আলু চাষিদের একাংশ। অধিকাংশ আলু চাষে ঋণ নিয়ে আলু চাষ করেছিলেন। চলতি মরশুমে আবহাওয়া ভালো থাকায় আলুর ফলন ভালো হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। চড়া দামে সার বীজ কিনে আলু চাষ করেছিলেন কৃষকেরা। ফলন অত্যন্ত ভালো হওয়ায় ব্যাপক উৎপাদন হয়েছে আলুর।

এমন পরিস্থিতিতে আলুর দাম না পেয়ে মাথায় হাত কৃষকদের। এমনকি মালদহ জেলায় পর্যাপ্ত হিমঘর না থাকায় আলু মজুত রাখতেও হিমশিম খেতে হচ্ছে কৃষকদের।

সূত্র- নিউজ ১৮ বাংলা

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

বাতালায় রেললাইনে ট্রাক্টর তুলে দিলেন বিক্ষুব্ধ কৃষকরা

নিজস্ব সংবাদদাতা: রাস্তার জন্য অধিগৃহীত জমির ন্যায্য ক্ষতিপূরণ এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত ফসলের জন্য সরকারি সহায়তার দাবিতে কৃষক আন্দোলনের জেরে সোমবারও ৬ টি ট্রেন বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। কিষান মজদুর সংঘর্ষ কমিটির ডাকে পাঞ্জাবের গুরদাসপুর জেলার বাতালা রেল স্টেশনে দু’দিন ধরে ‘রেল রোকো’ আন্দোলন চলছে।

রেললাইনের ওপর বেশ কয়েকটি ট্রাক্টর তুলে দিয়ে অবরোধ চালানো হচ্ছে। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সারোয়ান সিং পান্ধের বলেন, কৃষকদের দাবি মেনে নিতে হবে রাজ্যের আপ সরকার এবং কেন্দ্রের মোদী সরকারকে। পরিস্থিতি সামলাতে এদিন ঘটনাস্থলে যান গুরদাসপুরের ডেপুটি কমিশনার এবং বাতালা পুলিশের সিনিয়র সুপারিনটেনডেন্ট।

তাঁরা রাজ্য সরকারের তরফে বিক্ষোভরত কৃষকদের কাছে বেশ কয়েকটি প্রস্তাব দেন। কিন্তু পান্ধের বলেন, মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্যোগ নিয়ে কৃষকদের দাবি মেটাতে হবে।

কৃষকের থেকে লুট: ৩ এপ্রিল ২০২৩

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *