জয় কিষাণ: ৬ জানুয়ারি ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 5

ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের গ্যারান্টি: কী এবং কীভাবে? (প্রথম কিস্তি)

যোগেন্দ্র যাদব

“এ বছর রসুন চাষির সর্বনাশ হয়েছে। এক কেজি রসুন রোপণ করলে চাষির খরচ হয় ১২ থেকে ১৫ টাকা। কিন্তু এ বছর বাজারে তিনি পাচ্ছেন মাত্র ৩ থেকে ৫ টাকা। মান্ডিতে নিয়ে যাওয়ার খরচ উঠছে না। একটা সময় ছিল যখন রসুন বিক্রি করে সেই টাকায় মোটর সাইকেল বা গাড়ি কিনতেন চাষিরা। এ বছর ঋণও শোধ করতে পারেননি”। এই গল্পটি পশ্চিম মধ্যপ্রদেশের এক কৃষকের। রাজস্থান ও গুজরাত সংলগ্ন এই এলাকায় রসুন ছাড়াও চাষিরা পেঁয়াজ চাষ করেন। এ বছর তাতেও লোকসান হচ্ছে। খরচ প্রতি কেজি ৬ থেকে ৭ টাকা, কিন্তু বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১ টাকা কেজি।

বিস্তারিত পড়তে এখানে ক্লিক করুন

তেলেঙ্গানায় কৃষকের মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভ

তেলেঙ্গানার কামারেডি জেলায় কৃষিজমি এলাকায় শিল্পাঞ্চল তৈরি করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে। সেই শিল্পাঞ্চল তৈরির সম্ভাবনায় জমি হারানোর ভয়ে আত্মহত্যা করলেন এক কৃষক। মৃত কৃষকের নাম পি. রামুলু। তিনি সদাশিবনগর মণ্ডলের আদলুর ইয়েলারেডির বাসিন্দা।

ওই এলাকায় শিল্পাঞ্চল গঠনের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই ক্ষোভ জমেছিল কৃষকদের মধ্যে। তার মধ্যেই এক কৃষকের মৃত্যুকে ঘিরে এলাকাবাসীরা অসন্তোষে ফেটে পড়েন। কামারেডি পুর কার্যালয়ের সামনে তাঁর দেহ নিয়ে প্রতিবাদের চেষ্টা করেন মৃত কৃষকের পরিবারের সদস্যরা ও অন্যান্য কৃষকরা। পুলিশ এসে বাধা দেওয়ায় বিক্ষোভ তুলে নিতে বাধ্য হন চাষিরা। এরপর বুধবার কামারেডি বাস টার্মিনালে ৪৪ নম্বর পুরানো জাতীয় সড়কে দুই ঘণ্টা ধরে বিক্ষোভ করেন। পরিস্থিতির সামাল দিতে ওই এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

সূত্র- ডেকান ক্রনিকল

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

বিমা করেও পাওয়া গেল না প্রাপ্য টাকা, প্রতিবাদে বাঁকুড়ার চাষিরা

বাঁকুড়ায় ফসলবিমা থাকা সত্ত্বেও টাকা না পাওয়ায় বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন কৃষকরা। ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে এলাকার রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের শাখার সামনে বিক্ষোভ প্রকাশ করলেন তাঁরা। ঘটনাটি বিষ্ণুপুর ব্লকের খড়কাটা এলাকায় ঘটে।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, অন্যান্য বছরের মতন এ বছরেও তাঁরা ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে কৃষিকাজ করেছেন। কিন্তু গত দু’বছরে নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে সেইভাবে লাভের মুখ দেখতে পাননি। ফসলবিমা থাকা সত্ত্বেও গত দুই বছর ধরে সেই বিমার টাকা পেতে নাকানি-চোবানি খাচ্ছেন। কৃষি দপ্তর থেকে জানানো হয়, বিপুল সংখ্যক কৃষককে বিমার টাকা দিতে গিয়েই নাম বাদ পড়ে গেছে কিছু কৃষকের।

সূত্র- নিউজ বিশ্ব বাংলা

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

এমজিএনআরইজিএস প্রকল্পে অ্যাপের ব্যবহার দরিদ্র কৃষকদের জন্য ভুল পদক্ষেপ: কংগ্রেস

নিজস্ব প্রতিবেদন: মহাত্মা গান্ধি ন্যাশনাল রুরাল এমপ্লয়মেন্ট জেনারেশন স্কিমের সমস্ত কাজ অ্যাপভিত্তিক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস। কংগ্রেস বুধবার জানায় এই সিদ্ধান্ত অবিলম্বে প্রত্যাহার করা উচিত। এই ব্যবস্থা চালু করার ফলে প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে যে সমস্ত কৃষক তাঁদের মজুরি পায়নি, তাঁদের অবিলম্বে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিও তোলেন কংগ্রেস নেতৃত্ব।

কংগ্রেস মুখপাত্র জয়রাম রমেশ একটি বিবৃতিতে বলেন যে এটি গরিব মানুষের প্রতি মোদি সরকারের ডিজিট্যাল বনধ। এর ফলে এমজিএনআরইজিএস প্রকল্প খাতে সরকারের খরচ কমবে। এই খরচ কমানোর লক্ষ্যেই দেশের কেন্দ্রীয় সরকার কোটি কোটি গরিব মানুষের প্রাপ্য টাকা না দিয়ে ঠকাতে চেষ্টা করছে। তিনি আরও বলেন, “এই ব্যবস্থার ফলে দুর্নীতির নতুন রাস্তা খুলতে চলেছে মোদি সরকার। কর্মীরা তাঁদের প্রাপ্য মজুরি পেতে অনেক সমস্যায় পড়বেন। বিশেষত মহিলা এবং প্রান্তিক মানুষ, যাঁদের স্মার্ট ফোন নেই তাঁরা তীব্র সমস্যায় পড়বেন”। তাই এমজিএনআরইজিএস প্রকল্পে আগের পদ্ধতিকেই সমর্থন করেন কংগ্রেস মুখপাত্র।

ফসল কাটার যন্ত্রের ভাড়া বাড়ায় তামিলনাড়ুর কৃষকরা বিপাকে

ফসল কাটার মেশিনের ভাড়া বাড়ায় বিপাকে তামিলনাড়ুর চাষিরা। কৃষকরা ন্যায্য ভাড়া নির্ধারণের জন্য অবিলম্বে সরকারি আধিকারিক এবং বেসরকারি ফসল কাটার মেশিন অপারেটরদের সঙ্গে একটি ত্রিপাক্ষিক বৈঠক আহ্বান করার জন্য জেলা প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছেন। ইতিমধ্যেই তামিলনাড়ুর তাঞ্জাভুর জেলার কিছু অংশে আগাম সাম্বা ধান কাটা শুরু হয়েছে। এ বছর তাঞ্জাভুর জেলায় সাম্বা এবং থালাডি ধান ৩.৫ লক্ষ একরেরও বেশি জমিতে চাষ করা হয়েছে।

তামিলনাড়ুর কাক্কারাইয়ের কৃষক আর. সুকুমারন বলেন, “অপারেটররা প্রতি ঘণ্টায় ভাড়া ২০০-৪০০ টাকা বাড়িয়েছেন। সম্প্রতি কুরুভাই ধান কাটার মরসুমে, ভাড়া ছিল প্রায় ২৬০০ টাকা। এখন তাঁরা প্রতি ঘণ্টা প্রায় ২৮০০-৩০০০ টাকা নেন। ন্যায্য ভাড়া নির্ধারণের জন্য জেলা প্রশাসনের শীঘ্রই একটি ত্রিপাক্ষিক বৈঠক ডাকা উচিত”। কৃষি ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের এক আধিকারিক বলেন, সভার জন্য একটি প্রস্তাব ইতিমধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে এবং শীঘ্রই সভা অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্র- দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *