জয় কিষাণ: ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 6

বিশেষ ফটো ফিচার: সাধারণতন্ত্র দিবসে দেশজুড়ে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নানা কর্মসূচি

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে ২৬ জানুয়ারি সারা দেশের কৃষকরা আবার একত্রিত হয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পরে ট্রাক্টর মিছিল, পদযাত্রা এবং সম্মেলনে যোগ দিয়ে প্রজাতন্ত্র দিবস পালন করলেন। ভারতের কৃষক বিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতৃত্বে ঐতিহাসিক সংগ্রামে প্রাণ হারানো শহিদ কৃষকদের শ্রদ্ধা জানানো এবং জেলা শাসকদের কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে, হরিয়ানার জিন্দে এদিন একটি বিশাল কৃষক মহাপঞ্চায়েত অনুষ্ঠিত হয়। মহাপঞ্চায়েত ভারতীয় সংবিধান এবং গণতন্ত্রকে আক্রমণকারী ফ্যাসিবাদী, সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে একটি দৃঢ় বার্তা পাঠায়, পাশাপাশি কৃষকদের সমস্যাগুলিও উত্থাপন করা হয়।

বিশদে দেখতে এখানে ক্লিক করুন

দিল্লিতে আবারও বিক্ষোভের ডাক কৃষকদের

প্রজাতন্ত্র দিবসে হরিয়ানার জিন্দে অনুষ্ঠিত কিষাণ মহাপঞ্চায়েতে কৃষক নেতা দর্শন পাল জানান, ১৫ মার্চ থেকে ২২ মার্চ দিল্লিতে এক বড় বিক্ষোভ আয়োজন করা হবে। ৯ ফেব্রুয়ারি কুরুক্ষেত্রে বিক্ষোভের তারিখ ঘোষণা করা হবে।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে হরিয়ানার জিন্দে কিষাণ মহাপঞ্চায়েতে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, হিমাচল প্রদেশ, রাজস্থান এবং উত্তরাখণ্ড-সহ বিভিন্ন রাজ্যের কৃষকরা অংশ নিয়েছেন। দর্শন পাল ছাড়াও কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত, জোগিন্দর সিং উগ্রাহান, হরিন্দর সিং লাখোওয়াল প্রমুখ বেশ কয়েকজন কৃষক নেতা সমাবেশে যোগ দেন।

বিক্ষোভে কৃষকদের বিভিন্ন দাবি তুলে ধরা হবে। কৃষকদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার, পেনশন, ঋণ মকুব, শহিদ কৃষকদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ, বিদ্যুৎ বিল প্রত্যাহার ইত্যাদি দাবি গুলোকে সামনে রাখা হবে।

সূত্র- খাস খবর

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

হাতির হানায় ফসল নষ্ট, বাঁকুড়ায় কৃষকদের বিক্ষোভ

অবিলম্বে হাতির দাপট বন্ধ করতে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছে সারা ভারত কৃষক সভা। হাতির তাণ্ডবে অতিষ্ঠ বাঁকুড়ার বড়জোড়া ও বেলিয়াতোড় রেঞ্জ এলাকার বাসিন্দারা। বুনো হাতির আক্রমণে বছরের শুরুতেই ৩ জন প্রাণ হারান। হাতির হানা ঠেকানোর দাবিতে সারা ভারত কৃষক সভার পক্ষ থেকে বুধবার বেলিয়াতোড় রেঞ্জ অফিসে বিক্ষোভ প্রদর্শন ও ডেপুটেশন জমা দেওয়া হয়।

কৃষকদের দাবি, হাতিগুলিকে ৭ দিনের মধ্যে এলাকা থেকে সরাতে হবে। মৃতদের পরিবারের ১ জনকে স্থায়ী চাকুরি এবং ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিও ওঠে। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার কৃষকদের জল-জঙ্গল-জমি কেড়ে নিয়ে সেখানে তথাকথিত ‘উন্নয়ন’ করে চলেছে। ফলত কমছে বনভূমি। অরণ্য নিধনের ফলে বন্য প্রাণীদের থাকার এবং খাদ্যের অভাব এখন প্রকট হয়ে উঠেছে। যার ফলে বন্য প্রাণীরা লোকালয়ে ঢুকে কৃষকদের জমির ফসল নষ্ট করছে। সারা ভারত কৃষক সভার পক্ষ থেকে স্পষ্ট জানানো হয়েছে প্রশাসন অবিলম্বে ব্যবস্থা না নিলে কৃষকদের পক্ষ থেকে আন্দোলন তীব্র করা হবে।

সূত্র- আমাদের ভারত ডট কম

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

হুগলি জেলায় পালিত হল কৃষক শহিদ দিবস

নিজস্ব প্রতিনিধি: বৃহস্পতিবার সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে জয় কিষাণ আন্দোলন এবং অখিল ভারতীয় কিষাণ মহাসভার উদ্যোগে হুগলি জেলার কৃষকরা প্রজাতন্ত্র দিবস এবং কৃষক শহিদ দিবস পালন করলেন খন্ন্যানে জয় কিষাণ আন্দোলনের কার্যালয়ে।

ভারতীয় সংবিধানের ওপর ক্রমাগত আঘাত হেনে চলেছে আরএসএস-বিজেপি। যার প্রতিরোধে সংগ্রাম করছেন আমাদের অন্নদাতা কৃষকরা। তিনটি কর্পোরেট-বান্ধব কৃষি আইনের বিরুদ্ধে তাঁরা দিল্লিতে ঐতিহাসিক আন্দোলন করেন। প্রজাতন্ত্র দিবসে ভারতের গণতন্ত্র ও এবং ধর্মনিরপেক্ষতাকে সুরক্ষিত করতে লড়াইয়ের ডাক দিয়েছে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। হুগলি জেলার কৃষকরাও তাতে শামিল হলেন।

দিল্লির কৃষক আন্দোলনে অংশ নিয়ে শহিদ হন ৭০০ জনেরও বেশি কৃষক। প্রজাতন্ত্র দিবসে তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়েছে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। সেই ডাকে সারা দিয়ে হুগলি জেলার চাষিরাও এদিন শহিদ কৃষকদের স্মরণ করলেন।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে প্রজাতন্ত্র দিবসে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে দিল্লিতে ঐতিহাসিক ট্রাক্টর র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। তারই স্মরণে বৃহস্পতিবার দেশজুড়ে কৃষকদের ট্রাক্টর র‍্যালি এবং অন্যান্য কর্মসূচি পালিত হল।

এদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খন্ন্যানে জয় কিষাণ আন্দোলনের কার্যালয়ে প্রজাতন্ত্র দিবস এবং কৃষক শহিদ দিবস পালন করেন চাষিরা। উপস্থিত ছিলেন জয় কিষাণ আন্দোলনের হুগলি জেলা সভাপতি সুশান্ত কাঁড়ি, অখিল ভারতীয় কিষাণ মহাসভার হুগলি জেলা সম্পাদক মুকুল কুমার এবং অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এই অনুষ্ঠানে সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে কৃষকরা জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এরপর শহিদ কৃষকদের ছবি সামনে রেখে মাল্যদান করা হয়। বক্তব্য রাখেন সুশান্ত কাঁড়ি, মুকুল কুমার এবং অন্যান্য নেতৃবর্গ। এদিনের অনুষ্ঠানে প্রায় ৫০ জন কৃষক ও সাধারণ জনতা সমবেত হন।

উত্তর দিনাজপুরে আয়োজিত হল কৃষকদের ট্রাক্টর র‍্যালি

নিজস্ব প্রতিনিধি: বৃহস্পতিবার প্রজাতন্ত্র দিবসে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর জেলার কৃষকেরা বিশাল ট্রাক্টর র‍্যালি সংগঠিত করলেন জয় কিষাণ আন্দোলন, সর্বভারতীয় কৃষক সভা, কৃষক-ক্ষেতমজুর সংহতি সমিতি প্রভৃতি কৃষক সংগঠনের উদ্যোগে।

কেন্দ্রীয় সরকারের তিনটি কর্পোরেট-বান্ধব কৃষি আইনের বিরুদ্ধে কৃষকরা দিল্লিতে ঐতিহাসিক আন্দোলন করেছিলেন সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতৃত্বে। এই আন্দোলনে অংশ নিয়ে শহিদ হন ৭০০ জনেরও বেশি কৃষক। ২০২১ সালে প্রজাতন্ত্র দিবসে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে দিল্লিতে ঐতিহাসিক ট্রাক্টর র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। তারই স্মরণে বৃহস্পতিবার এসকেএমের ডাকে দেশজুড়ে জেলায় জেলায় কৃষকদের ট্রাক্টর র‍্যালি এবং অন্যান্য কর্মসূচি পালিত হল।

উত্তর দিনাজপুরের কৃষকরা সকাল ১০টা নাগাদ ট্রাক্টর র‍্যালি শুরু করেন গোয়ালপুকুর থেকে। পাঞ্জিপাড়া, শ্রীকৃষ্ণপুর হয়ে তাঁরা ইসলামপুর কোর্ট ময়দানের চারদিকে প্রদক্ষিণ করেন। তারপর ইসলামপুর বাজার ঘুরে ইসলামপুরের কিষাণ মান্ডিতে র‍্যালি সমাপ্ত করেন বিকেল ৪টে নাগাদ। জয় কিষাণ আন্দোলনের নেতা শম্ভুলাল রায় এবং অন্যান্য নেতৃবর্গ উপস্থিত ছিলেন এদিনের কর্মসূচিতে। প্রায় ৪০০ জন কৃষক এই ট্রাক্টর র‍্যালিতে যোগ দেন।

কৃষকের থেকে লুট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *