জয় কিষাণ: ২৬ জানুয়ারি ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 5

সারা ভারত জুড়ে আজ কৃষক জমায়েত

নিজস্ব প্রতিনিধি: সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে আজ ২৬ জানুয়ারি সারা দেশের কৃষকরা আবার একত্রিত হয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পরে ট্রাক্টর মিছিল, পদযাত্রা এবং সম্মেলনে যোগ দিয়ে প্রজাতন্ত্র দিবস পালন করবেন। আশা করা যাচ্ছে, এই কর্মসূচি ৩০০টি জেলা সমেত প্রায় ২০টিরও বেশি রাজ্যে অনুষ্ঠিত হবে। ভারতের কৃষক বিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতৃত্বে ঐতিহাসিক সংগ্রামে প্রাণ হারানো শহিদ কৃষকদের শ্রদ্ধা জানানো হবে এবং জেলা শাসকদের কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হবে।

হরিয়ানার জিন্দে আজ একটি বিশাল কৃষক মহাপঞ্চায়েত অনুষ্ঠিত হবে। ২৬ জানুয়ারি, ২০২১-এ সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ঐক্য ভাঙতে বিজেপি সরকারের ষড়যন্ত্র ফাঁস করবে এসকেএম। মহাপঞ্চায়েতে কৃষকরা মিলিত হয়ে ভবিষ্যত কর্মসূচি ঘোষণা করবেন। মহাপঞ্চায়েত ভারতীয় সংবিধান এবং গণতন্ত্রকে আক্রমণকারী ফ্যাসিবাদী, সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে একটি দৃঢ় বার্তা পাঠাবে, পাশাপাশি কৃষকদের সমস্যাগুলিও উত্থাপন করবে।

২৬ জানুয়ারি থেকে কৃষক আন্দোলন তীব্র হবে: রাকেশ টিকায়েত

কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত সোমবার জানান, ২৬ জানুয়ারি থেকে সারা দেশ ব্যাপী কৃষক আন্দোলন আরও জোরদার হবে। টিকায়েত বিহারের বক্সারে বানারপুর গ্রামের কৃষকদের সঙ্গে দেখা করতে যান। যাঁরা ৯২ দিন ধরে জমির ক্ষতিপূরণের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন। এই আন্দোলনকে আরো জোরদার করতে তিনি সেখানে দশ দিন থাকবেন বলেও জানান।

উল্লেখ্য, বিহারের বক্সারের ঘটনায় বানারপুর গ্রামে জমি অধিগ্রহণকে কেন্দ্র করে তিনশোটির বেশি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কিছু দলিত পরিবার তাঁদের ঘরবাড়ি হারিয়েছেন।

সূত্র- বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

আশিস মিশ্রকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেওয়ায় হতাশা প্রকাশ করল এসকেএম

নিজস্ব প্রতিনিধি: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্রকে ৮ সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আদেশে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা শোক ও হতাশা প্রকাশ করছে। আশিস মিশ্র উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে গাড়ি চাপা দিয়ে ৪ জন কৃষক এবং ১ জন সাংবাদিককে প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যা করেছিল বলে অভিযোগ। এসকেএমের মতে, এটি সামান্য সান্ত্বনা যে আদেশে বলা হয়েছে, মিশ্রকে তার মুক্তির ১ সপ্তাহের মধ্যে উত্তরপ্রদেশ ত্যাগ করতে হবে এবং সে উত্তরপ্রদেশ অথবা দিল্লির এনসিটিতে থাকতে পারবে না। আশিস মিশ্র ক্ষমতাসীন বিজেপির সঙ্গে যুক্ত একজন শক্তিশালী রাজনীতিবিদ এবং তার মুক্তি সাক্ষীদের ব্যাপকভাবে ভয় দেখাবে এবং বিচার প্রক্রিয়াকে বিপন্ন করবে বলে এসকেএম মনে করছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বিজেপির নেতৃত্বাধীন উত্তরপ্রদেশ সরকার আশিস মিশ্রের গ্রেপ্তার ও অভিযোগের বিষয়ে হালকা পদক্ষেপ নিচ্ছিল।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা বরাবরই লখিমপুর খেরির দোষীদের দ্রুত শাস্তি এবং মন্ত্রিসভা থেকে অজয় মিশ্র টেনিকে অপসারণের দাবি করেছে, কিন্তু উভয় দাবিই অপূর্ণ রয়ে গেছে। অজয় মিশ্র যেন আর একটি সন্ত্রাসের রাজত্ব শুরু না করতে পারে তা নিশ্চিত করার জন্য সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা জানিয়েছে যে তারা নজরদারি রাখবে এবং বিনীতভাবে আবেদন করবে যে সুপ্রিম কোর্ট যেন অন্তর্বর্তীকালীন জামিন প্রত্যাহার করে এবং যে কোনও ক্ষেত্রে এটি আর বাড়ানো না হয়। আশিস মিশ্র এবং তার বাবা অজয় মিশ্র সমাজের জন্য ক্ষতিকারক এবং তাদেরকে সমাজের সর্বনাশ করতে আর দেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছে এসকেএম।

লখিমপুর খেরি ঘটনার জেরে জেলে বন্দি নির্দোষ কৃষকদের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেওয়া হয়েছে জেনে খুশি সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা কৃষকদের স্থায়ী জামিন এবং তাঁদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে।

দিল্লি যাওয়ার ডাক দিলেন কৃষক নেতা রবি আজাদ

আজ ২৬ জানুয়ারি সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার আহ্বানে দিল্লি যাওয়ার ডাক দিলেন হরিয়ানার কৃষক নেতা রবি আজাদ। তিনি একটি ভিডিও বার্তায় বুধবার বলেন, “গণতন্ত্রকে বাঁচানোর জন্য এবং কৃষকদের আলাদা আলাদা দাবিগুলি যেগুলি কেন্দ্রীয় সরকার প্রতিশ্রুতি দিয়েও রক্ষা করেনি সেগুলি আদায়ের দাবিতে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতৃত্বে হরিয়ানার জিন্দে কিষাণ মহাপঞ্চায়েত হবে”।

তিনি আরও বলেন যে, “আমি সমস্ত খাপ পঞ্চায়েত, যুবক, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং সমাজের সমস্ত স্তরের মানুষদের কাছে আবেদন রাখছি আগামীকাল গোটা উত্তর ভারতের মহাপঞ্চায়েতে যোগদান করার জন্য। এখান থেকে কৃষক আন্দোলনের ভবিষ্যতের রূপরেখা তৈরি হবে।” এছাড়াও মার্চ মাসে দিল্লি যাওয়ার কার্যক্রম ২৬ জানুয়ারির মহাপঞ্চায়েত থেকে ঘোষিত হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সূত্র- সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা পশ্চিমবঙ্গ

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

মহারাষ্ট্রে জমি অধিগ্রহণের প্রতিবাদে কৃষকদের বিক্ষোভ

মহারাষ্ট্রের কোলহাপুরে মঙ্গলবার সারা ভারত কিষাণ সভার সদস্যরা ও নাগপুর-রত্নগিরি জাতীয় মহাসড়ক নির্মাণের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা কালেক্টর অফিসের সামনে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটে বসেন। চাষিদের দেবত্র জমি দীর্ঘদিন ধরে দখল করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। এছাড়া কৃষকরা দাবি করেন, যাঁদের জমি নাগপুর-রত্নগিরি জাতীয় মহাসড়ক নির্মানের জন্য অধিগ্রহণ করা হয়েছে তাঁদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

আরও দাবি ওঠে জমির ক্ষতিপূরণ সমানভাগে ভাগ করতে হবে। বিক্ষোভকারী কৃষকরা সাফ জানান তাঁদের দাবি পূরণ না হলে তাঁরা আরও বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটবেন।

সূত্র- টাইমস অব ইন্ডিয়া

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

কৃষকের থেকে লুট: ২৪ জানুয়ারি ২০২৩

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *