জয় কিষাণ: ২০ জানুয়ারি ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 4

কর্ণাটকে ডাল চাষির আত্মহত্যা

অত্যাধিক বৃষ্টি এবং উইল্ট রোগের প্রকোপে ফসল নষ্ট হওয়ায় কর্ণাটকের কালাবুরাগি জেলার এক ডাল চাষি হতাশাগ্রস্ত হয়ে গত সপ্তাহে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। মৃত কৃষকের নাম সন্তোষ যাদব (৩৩)। ঋণের বোঝা এবং পাওনাদারের ক্রমাগত তাগাদা তাঁকে আরও সঙ্কটে ফেলেছিল। ২০২২-এর নভেম্বর থেকে কর্ণাটকের কালাবুরাগি জেলায় সন্তোষ যাদবকে নিয়ে এ পর্যন্ত ২৫ জন কৃষক ফসল নষ্টের ফলে আত্মহত্যা করলেন। যদিও কর্ণাটকের বিজেপি সরকার কৃষকদের আত্মহত্যার বিষয়ে এখনও উদাসীন।    

কৃষকের আত্মহত্যার ঘটনায় জেলা শাসক বলেন, “ফসল নষ্টের জন্য ভাগচাষিরা কোনো ক্ষতিপূরণের দাবিদার নন। যারা জমির মালিক তাঁরাই একমাত্র ক্ষতিপূরণের দাবিদার”। উল্লেখ্য, আত্মঘাতী কৃষক ডাল চাষের জন্য ৩০ একর জমি লিজে নিয়েছিলেন। ক্ষতিপূরণের এই নিয়মের ফলে অনেক চাষি আত্মহত্যা করলেও রাজ্য সরকার এখনও নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।  

সূত্র- ডেকান হেরাল্ড

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

লোকসভা ভোটের আগে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিলেন রবি আজাদ

বৃহস্পতিবার হরিয়ানায় একটি কৃষক জমায়েত থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের ‘কৃষক বিরোধী’ নীতির কড়া সমালোচনা করেন কৃষক নেতা রবি আজাদ। এদিন তিনি বলেন, “আমাদের লড়াই জমির লড়াই। সরকার যদি তার দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন না করে তবে সামনেই লোকসভা ভোট। ভোট বাক্সে তার প্রতিফলন দেখা যাবে”। কৃষক জমায়েত থেকে তিনি গর্জে ওঠেন এই বলে যে, “কৃষকদের দাবিগুলো অবিলম্বে পূরণ করুক কেন্দ্র। না হলে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে। আরও একটি পৃথিবীর বৃহত্তম কৃষক আন্দোলন দেখতে পাবে দেশ”।  

সূত্র- পাহারেদার ভারত নিউজ

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

আশিস মিশ্রর জামিন স্থগিত রাখল সুপ্রিম কোর্ট

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় কুমার মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্রের জামিন আপাতত স্থগিত রাখল শীর্ষ আদালত। উত্তরপ্রদেশ সরকার বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে আশিস মিশ্রের জামিনের আবেদনের বিরোধিতা করেছে। আশিস মিশ্র লখিমপুর খেরি সহিংসতার মামলার অভিযুক্ত। উত্তরপ্রদেশের অতিরিক্ত অ্যাডভোকেট জেনারেল গরিমা প্রসাদ বিচারপতি সূর্য কান্ত এবং বিচারপতি জে কে মহেশ্বরীর বেঞ্চকে বলেছেন “অপরাধটি গুরুতর”। এরপর জামিনের আবেদনের ভিত্তিতে রায় স্থগিত রাখে সুপ্রিম কোর্ট।

উল্লেখ্য, লখিমপুর খেরি জেলার টিকুনিয়ায় ৩ অক্টোবর ২০২১-এ কৃষকরা যখন উত্তরপ্রদেশের উপ-মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্যের এলাকায় সফরের সময় বিক্ষোভ করছিলেন, তখন সহিংসতায় আটজন নিহত হয়েছিলেন। আন্দোলনকারী চাষিরা জানিয়েছেন, চারজন কৃষককে একটি এসইউভি গাড়ি চাপা দেওয়া হয়েছিল, যেখানে আশিস মিশ্র বসেছিলেন।

সূত্র- হিন্দুস্তান টাইমস

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

কৃষকদের দাবি সামনে রেখে চলছে ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের সর্বভারতীয় সম্মেলনের প্রচার

নিজস্ব সংবাদদাতা: সারা ভারত ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের দশম সর্বভারতীয় সম্মেলন আগামী ১৫ থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি হাওড়ার শরৎ সদনে অনুষ্ঠিত হবে। এই উপলক্ষ্যে ব্যাপক প্রচার চালাচ্ছেন সংগঠনের কর্মীরা। তাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই সম্মেলনের জন্য অর্থসংগ্রহও করছেন। বিভিন্ন দিনে অর্থসংগ্রহ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন গণআন্দোলনের নেতা শ্রীদীপ ভট্টাচার্য, দেবব্রত ঘোষ-সহ কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।  

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের ‘কৃষক-ক্ষেতমজুর বিরোধী’ অবস্থান ক্রমে স্পষ্ট হচ্ছে। কেন্দ্র ও রাজ্য উভয় সরকারের জাঁতাকলে পরে কৃষক-সহ ক্ষেতমজুরদের অবস্থা বিপন্ন। এমন সময় দাঁড়িয়ে এই সম্মেলনের গুরুত্ব অপরিসীম বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

দূষণের মাত্রা পরীক্ষা করার দাবি তুললেন চাষিরা

কৃষকদের দীর্ঘ আন্দোলনের পর পাঞ্জাবের জিরাতে মদের কারখানা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। সর্বভারতীয় কিষাণ সভা দূষিত জল নিঃসরণকারী কারখানাগুলোর বিরুদ্ধে সরকারকে ব্যবস্থা নিতে বলেছে। সভায় রাজ্য সহ-সভাপতি লখবীর সিং নিজামপুরা বলেন, “রাজ্যে বায়ু, জল এবং মাটি দূষণের জন্য দায়ী শিল্প ইউনিটগুলোকে স্পষ্টভাবে বার্তা দিক সরকার”। তিনি আরও বলেন, “দূষণ রুখতে পাঞ্জাব দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড ও সরকারকে দায়িত্ব নিতে হবে”। কৃষক সংগঠনটি পাঞ্জাবে কৃষিভিত্তিক শিল্পের প্রস্তাব দেয়।

সূত্র- দ্য ট্রিবিউন

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

কৃষকের থেকে লুট: ১৮ জানুয়ারি ২০২৩

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *