জয় কিষাণ: ১ জানুয়ারি ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 5

আলুর দাম পর্যাপ্ত নয়, বিপাকে মুর্শিদাবাদের চাষিরা

আলুর ওপর ধার্য করা মূল্য পর্যাপ্ত নয়। ফলে ক্ষতির মুখে পড়েছেন মুর্শিদাবাদ জেলার বড়ঞা ব্লকের আলু চাষিরা। তাঁদের দাবি, উৎপাদনের পেছনে বিঘা প্রতি তাঁদের কুড়ি হাজার টাকা করে খরচ হয়েছে। কিন্তু সরকারের ধার্য করা মূল্যে বিক্রি করে লাভের থেকে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন তাঁরা।

মুর্শিদাবাদের আলু চাষিরা সরকারের কাছে নতুন আলুর দাম বৃদ্ধির দাবি জানালেন।তাঁরা জানান, সরকার অবিলম্বে কোনো পদক্ষেপ না নিলে তাঁরা বিপাকে পরবেন। বেশিরভাগ চাষি মহাজনদের থেকে ঋণ নিয়ে কৃষিকাজ করেন। তাঁরা যদি লাভের মুখ দেখতে না পান তাহলে সেই ঋণ পরিশোধ করতে ব্যর্থ হবেন।

সূত্র- নিউজ ১৮ বাংলা

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

জিরায় কৃষকদের সঙ্গে দেখা করলেন রাকেশ টিকায়েত

জিরায় চোলাই মদ কারখানার বিরুদ্ধে কৃষকদের বিক্ষোভ চলছে। সম্প্রতি কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত এলাকার কৃষকদের সঙ্গে দেখা করে সংহতি জানান। তিনি বলেন, “এখানে সঠিক দাবিতে আন্দোলন চলছে। যারা জল নষ্ট করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।”

এই অভিযোগকে পর্যালোচনা করার জন্য এলাকায় জল দূষণ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির দুই সদস্য গুরু নানক দেব বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানিক্যাল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক ডঃ মনপ্রীত সিং ভাট্টি এবং থাপার ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ দ্বারিকা নাথ ইতিমধ্যেই জিরা এলাকার ওই চোলাই মদের কারখানা পরিদর্শন করেছেন। সাঞ্জা মোর্চার একাংশের অভিযোগ কারখানার মালিকরা প্রমাণ লোপাটের জন্য কিছু পাম্প ওখান থেকে সরিয়ে দিয়েছে। যদিও কারখানার কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

সূত্র- দ্য আনমিউট

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

জমি অধিগ্রহণের নামে কৃষকদের ফসল নষ্ট করল রাজস্থান সরকার

রাজস্থানের গোঠড়া গ্রাম পঞ্চায়েতে শুক্রবার জোরজবরদস্তি করে কৃষকদের জমির ফসল নষ্ট করার অভিযোগ উঠল প্রশাসনের বিরুদ্ধে। কৃষকদের অভিযোগ, সিমেন্ট কোম্পানি জমি কাড়তে চাইছে। জয় কিষাণ আন্দোলনের রাজস্থান সভাপতি তথা কৃষক নেতা কৈলাশ যাদব বলেন, “নওয়লগড়ের গোঠরায় দেবগাঁও গ্রামে শুক্রবার জেলা প্রশাসন কৃষকদের সঙ্গে অন্যায় করেছে। কৃষকদের জমির ফসল নষ্ট করার সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিয়েছে। এছাড়াও কৃষকদের যানবাহন ভাঙচুর করেছে”।

জয় কিষাণ আন্দোলনের রাজ্য সভাপতি কৈলাশ যাদব প্রশাসনকে কৃষকদের ওপর জবরদস্তি না করার দাবি জানালেও প্রশাসন তাতে কর্ণপাত করেনি। রামচন্দ্র খাটকর নামের এক কৃষক জানান যে বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকার কারণে তাঁদের সন্তানরা সামনে পরীক্ষা থাকা সত্ত্বেও পড়তে পারছে না। আরেক কৃষক জগদীশ প্রসাদ বলেন, “আমার জমি সিমেন্ট কোম্পানির এলাকার মধ্যে পরে। সিমেন্ট কোম্পানি প্রতি বিঘা ১৬ লাখ টাকা দিচ্ছে। কিন্তু অন্যান্য কৃষকদের ২২-২৩ লাখ টাকা দিয়েছে। আমরা আমাদের জমি দেব না।”     

সূত্র – দৈনিক ভাস্কর

বিস্তারিত পড়ুন

হরিয়ানা সরকার নির্দোষ কৃষক ও আমজনতাকে মিথ্যে মামলায় আটক করেছে: যোগিন্দর নয়ন

হরিয়ানা সরকারের কৃষক বিরোধী নীতির ফলে চাষিরা বিপর্যস্ত। সেরাজ্যে ঘটে চলা বিভিন্ন কৃষক আন্দোলনে প্রচুর কৃষককে সরকার আটক করেছে। শুধু কৃষকই নয়, আমজনতা যাঁরা এই আন্দোলনের সংহতিতে ছিলেন তাঁরাও রাজ্য সরকারের এই দমন-পীড়নের শিকার।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার পক্ষ থেকে কৃষক নেতা যোগিন্দর নয়ন ৪ দিন আগে সংবাদ সংস্থার মুখোমুখি হয়ে বলেন, কৃষকদের নামে থাকা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। এছাড়াও ন্যূনতম সহায়ক মূল্য লাগু করা-সহ অন্যান্য দাবিও তাঁর বক্তব্যে উঠে আসে। কৃষকদের বিভিন্ন দাবিকে সামনে রেখে আগামী ২৬ জানুয়ারি সমস্ত জেলায় ট্রাক্টর মার্চ এবং হরিয়ানার জিন্দে বিশাল কিষাণ মহাপঞ্চায়েত হওয়ার কথাও তিনি বলেন।

সূত্র- হরিয়ানা নিউজ ২৪

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

হরিয়ানায় মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে কৃষকদের রাস্তা অবরোধ

হরিয়ানার কার্নালে গত রবিবার ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন (টিকায়েত)-এর নেতৃত্বে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে একটি পথ অবরোধ কর্মসূচি পালিত হয়। কৃষকদের দাবি, আখের রাজ্য পরামর্শিত মূল্য (SAP) প্রতি ক্যুইন্টাল ৪৫০ টাকা করতে হবে। কৃষকরা কার্নালের তিনটি চিনিকলের সামনে রাস্তা অবরোধ করেন এবং সরকারের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকেন।

বিজেপির কৃষক বিরোধী নীতির ফলে হরিয়ানায় কৃষকদের অবস্থা খুব সঙ্কটজনক। ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন (টিকায়েত)-এর রাজ্য সভাপতি রতন মান বলেন তাঁরা ১ সপ্তাহ আগে হরিয়ানা সরকারকে ৭ দিনের চূড়ান্ত সময়সীমা দিয়েছিলেন। কিন্তু সরকার তাঁদের দাবি মানেননি। এর ফলেই এই আন্দোলন বলে জানান তিনি।

সূত্র- দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

কৃষকের থেকে লুট: ৩০ ডিসেম্বর ২০২২

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *