জয় কিষাণ: ১৮ জানুয়ারি ২০২৩

জয় কিষাণ ডেস্ক
লিখেছেন জয় কিষাণ ডেস্ক পড়ার সময় 4

নাসিকে কৃষকদের বিক্ষোভ

নাসিক ডিস্ট্রিক্ট সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের জোরালো বকেয়া ঋণ পুনরুদ্ধার অভিযান চলছে। এর বিরুদ্ধে সোমবার স্বাভিমানি শেতকারি সংগঠনের প্রধান রাজু শেট্টির নেতৃত্বে কয়েকশো কৃষক মালেগাঁওতে জমায়েত করেন। মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী দাদা ভুসের বাসভবনের সামনে জমায়েতের অনুমতি না পেয়ে কৃষকরা পুলিশ প্যারেড গ্রাউন্ডে জমা হন। স্বাভিমানি শেতকারি সংগঠনের অভিযোগ, কৃষকরা ইচ্ছে করে ঋণ খেলাপি হননি। বাজারে ফসলের দাম না পেয়ে তাঁরা ব্যাঙ্কের ঋণ খেলাপ করতে বাধ্য হয়েছেন।

এ বিষয়ে কৃষকদের সঙ্গে মন্ত্রী দাদা ভুসের দু’ঘণ্টা বৈঠক হয়। সেখানে এই কৃষক সংগঠনটি ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মহারাষ্ট্র সরকারকে চরম সময়সীমা দিয়েছে। এই সময়সীমার মধ্যে কৃষকদের দাবি মানা না হলে মহারাষ্ট্রের থানেতে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে অনির্দিষ্টকালীন ধর্নায় বসার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা।

সূত্র- নিউজ ১৮ লোকমত

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

অমৃতসরে সরকারি নীতির কপি পোড়ালেন চাষিরা

কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটির সদস্যরা শুক্রবার পাঞ্জাবের অমৃতসরে সরকারি নীতির কপি পোড়ালেন। কেএমএসসির সাধারণ সম্পাদক সারওয়ান সিং পান্ধেরের নেতৃত্বে প্রশাসকের কার্যালয়ে ও টোল প্লাজায় বিক্ষোভ চালানো হয়। তাঁরা বলেন, কেন্দ্র ও রাজ্যের ভুল নীতিগুলোর জন্যে কৃষকদের ওপর চাপ বাড়ছে। ফলে সমাজে বেকারত্ব, মুদ্রাস্ফীতি, দুর্নীতি বাড়ছে। কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটির নেতারা দাবি জানান, অবিলম্বে কৃষকদের ঋণ মকুব করতে হবে।

সূত্র- দ্য ট্রিবিউন

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

সরকার কৃষকদের শ্রমিকে পরিণত করতে চায়: রাকেশ টিকায়েত

রাকেশ টিকায়েত বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন যে ফসলের সঠিক দাম কৃষকরা পাচ্ছেন না। তাঁদের জমি বড় শিল্পপতিদের কাছে বিক্রি করে দেওয়া হচ্ছে। সরকার কৃষকদের স্বার্থে কাজ করছে না। তিনি অভিযোগে জানান, কৃষকদের থেকে চাষের জমি কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। তাঁরা কৃষকদের উপযুক্ত স্বার্থের জন্য এই আন্দোলনে নেমেছেন।

রবিবার প্রয়াগরাজের মাঘ মেলা এলাকায় বিকেইউ ক্যাম্পে বক্তৃতার সময় রাকেশ টিকায়েত বলেন কর্পোরেট সংস্থাগুলি কৃষকদের নিজেদের জমিতে ক্ষুদ্র শ্রমিক হিসাবে কাজ করাতে চায়। কংগ্রেস শাসিত রাজ্যে কৃষকদের সমস্যাগুলি নিয়ে তাঁর সঙ্গে রাহুল গান্ধির আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তিনি। কৃষক নেতা টিকায়েত এদিন জানান ২০২৪ সালের নির্বাচনে বিকেইউ অন্য কোনো দলকে সমর্থন করবে না।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

বিশদে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

উত্তরপ্রদেশে আয়োজিত হল কিষাণ-মজদুর পঞ্চায়েত

নিজস্ব প্রতিনিধি: সোমবার উত্তরপ্রদেশে কিষাণ-মজদুর পঞ্চায়েতে ঋণ মকুব, বিনামূল্যে বিদ্যুৎ, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য এবং রেশন-সহ অন্যান্য দাবি উত্থাপন করা হয়।

সোমবার দুপুরে বহু কৃষক অল ইন্ডিয়া কিষাণ মজদুর সভার নেতৃত্বে উত্তরপ্রদেশের রাহি গ্রামে জড়ো হন। তাঁরা দরিদ্র মানুষ ও চাষিদের সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেন এবং মুখ্যমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

স্মারকলিপিতে স্বাক্ষরকালে বকেয়া বিল মুকুব এবং গৃহস্থালির ৩০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ ও টিউবওয়েল পাম্প বিনামূল্যে দেওয়ার দাবির প্রসঙ্গও উত্থাপিত হয়। প্রত্যেককে প্রতি ইউনিট ১৫ কেজি শস্য, ১ কেজি তেল, ১ কেজি ডাল-সহ কৃষকদের দীর্ঘ দিনের অন্যান্য দাবিও তোলা হয়।

এদিনের কিষাণ-মজদুর পঞ্চায়েত থেকে জানানো হয় আগামী ২৬ জানুয়ারি কৃষকরা তাঁদের দাবি আদায়ে সারাদেশে ট্রাক্টর মিছিল করবেন।

পাটনায় অখিল ভারতীয় কিষাণ সংঘর্ষ সমন্বয় সমিতির সভা

মঙ্গলবার অখিল ভারতীয় কিষাণ সংঘর্ষ সমন্বয় সমিতির নেতৃত্বে পাটনার প্রধান কৃষক সংগঠনগুলি জামাল রোডে অবস্থিত কিষাণ সভা অফিসে একটি জেলা স্তরের সভা করে। বৈঠকের মূল অ্যাজেন্ডা ছিল সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে দেশব্যাপী ট্রাক্টর র‍্যালির বাস্তবায়ন। চৌসায় কৃষকদের উপর লাঠিচার্জ এবং তাঁদের জমি অধিগ্রহণের বিষয়টিও কৃষক সংগঠনগুলি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা করেছে।

সভা শেষে চৌসায় কৃষকদের ওপর লাঠিচার্জের প্রতিবাদে জামাল রোড থেকে বুদ্ধ স্মৃতি পার্ক পর্যন্ত একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয় এবং বুদ্ধ স্মৃতি পার্কে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় নেতৃবৃন্দ কৃষকদের উপর পুলিশি নিপীড়নের নিন্দা জানান এবং জমির সঠিক ক্ষতিপূরণ দাবি করেন।

কিষাণ মহাসভার রাজ্য সম্পাদক উমেশ সিং এবং রাজেন্দ্র প্যাটেল, কিষাণ সভার রাজ্য সাধারণ সম্পাদক (ক্যানিং লেন) বিনোদ কুমার এবং পাটনা জেলা সভাপতি সোনা লাল প্রসাদ, এআইকেএমকেএস-এর নন্দ কিশোর সিং, এনএপিএম-এর উদয়ন রাই, জয় কিষাণ আন্দোলনের ঋষি আনন্দ, এআইকেকেএমএস-এর মণিকান্ত পাঠক-সহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন মণিকান্ত পাঠক।

সূত্র- সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা

বিশদে জানতে ভিডিওটি দেখুন

কৃষকের থেকে লুট: ১৬ জানুয়ারি ২০২৩

ট্যাগ করা হয়েছে:
এই নিবন্ধটি শেয়ার করুন
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *